প্রেস বিজ্ঞপ্তি (১৭ এপ্রিল ২০১৭ ইং)

ডায়াবেটিস, দীর্ঘসময়ব্যাপী অনিয়ন্ত্রিত উচ্চ রক্তচাপ, বিভিন্ন ধরনের সংক্রমণ, চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন ছাড়া বিভিন্ন ধরনের ব্যথার ওষুধ খাওয়া ইত্যাদির কারণে সারা দেশে কিডনিজনিত সমস্যায় ভুগতে থাকা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। আমাদের রাজ্যেও কিডনিজনিত সমস্যায় ভুগতে থাকা রোগী রয়েছেন, যাদের নিয়মিত ব্যবধানে ডায়ালাইসিস করতে হয়। রাজ্যে আগরতলা গভর্নমেন্ট মেডিক্যাল কলেজ এবং জি.বি.পি. হাসপাতাল, ত্রিপুরা মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড বি আর আম্বেদকর মেমোরিয়াল হাসপাতাল এবং আই এল এস হাসপাতালে ডায়ালাইসিসের সুবিধা রয়েছে।

স্বাস্হ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরের উদ্যোগে ডায়ালাইসিসের উন্নত পরিষেবা প্রদানের লক্ষ্যে নিম্নলিখিত ব্যবস্হাগুলি নেওয়া হয়েছেঃ

১) আগরতলা গভর্নমেন্ট  মেডিক্যাল কলেজ এবং জি.বি.পি. হাসপাতালে দিন-রাত (২৪ X ৭) ডায়ালাইসিস ইউনিট আজ (১৭ এপ্রিল ২০১৭ ইং) চালু হয়েছে। আগে দুইটি শিফটে এই পরিষেবা দেওয়া হত। আজ থেকে সকালের শিফটে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা, দুপুর শিফটে দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা এবং রাতের শিফটে রাত ৮টা থেকে সকাল ৮টা, এই তিনটি শিফট চালু হয়েছে। দিন-রাত ডায়ালাইসিস পরিষেবা চালু করার লক্ষ্যে ১২ জন নতুন নার্সকে ডায়ালাইসিস ইউনিটে একমাসব্যাপী প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও প্রয়োজন অনুসারে চিকিৎসক, টেকনিসিয়ান ও নার্স কর্মরত রয়েছেন এই ইউনিটে। এটি ২৪ ঘন্টা চালু হবার ফলে রাজ্যে ডায়ালাইসিস প্রয়োজন এমন রোগীরা সঠিক সময়ে এই পরিষেবা লাভ করতে পারবেন।

২) ডায়ালাইসিসের জন্য প্রয়োজনীয় এ ভি ফিস্টুলা মাইক্রোসা্র্জারির ব্যবস্হাও বর্তমানে জি.বি.পি. হাসপাতালে চালু করা হয়েছে।

৩) ডায়ালাইসিসের জন্য প্রয়োজনীয় আরও যন্ত্রপাতি স্হাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

আজ এই ইউনিটের কাজকর্ম সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে স্বাস্হ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরের প্রধান সচিব, স্বাস্হ্য অধিকর্তা ও মেডিক্যাল সুপারিনটেনটডেন্টসহ উচ্চপদস্হ আধিকারিকরা এই ইউনিট পরিদর্শণ করেন।